কখন গোসল করা ভালো সকালে না রাতে

দিনের শুরুটা কিংবা শেষটাকে শান্তিময় করে দিতে পারে একটা আরামদায়ক গোসল। তবে একেক জনের একেকক অভ্যাস থাকে। কেউ সকালে বাইরে যাওয়ার আগে গোসল করে নিতে পছন্দ করেন। আবার কেউ সারাদিন কাজ শেষে ক্লান্তি তাড়াতে গোসল করেন। তবে এখানে একটা বিতর্ক রয়েছে। কেউ ভাবেন সকালে আবার কেউ ভাবেন বিকাল বা রাতে গোসল করা স্বাস্থ্যের জন্যে ভালো। এ নিয়ে মাথা ঘামিয়েছে বিজ্ঞান। আসলে দুটো সময়েই গোসলের উপকারিতা রয়েছে। বিজ্ঞানের পরামর্শগুলো দেখে নেওয়া যাক।

সকালে গোসল করতে পারেন যদি.

১. ত্বক হয় তৈলাক্ত: যাদের ত্বকে অনেক তেল তারা গোসলের জন্যে সকালের সময়টাকে বেছে নিতে পারেন। রাতে ঘুমের সময় মুখে তেল জমে যায়। এই তেল সকাল সকাল ধুয়ে ফেলা উচিত। এতে ত্বক পরিষ্কার হয়। ব্রন হওয়ার সম্ভাবনা থাকে না। কাজেই ত্বক তৈলাক্ত হলে সকালে এসব ধুয়ে ফেলার জন্যে হলেও গোসল করে ফেলা দরকার। তাছাড়া নানা পরীক্ষাতেও দেখা গেছে এরা সকালে গোসল করে উপকৃত হয়েছেন।

২. সৃষ্টিশীল হওয়া দরকার: গোসল কিন্তু অনেক আরামদায়ক ও উপভোগ্য হয়ে উঠতে পারে যদি একে মেডিটেশনের মতো গ্রহণ করেন। বলা হয়, শান্ত মনে গোসল করতে থাকুন যেন আপনি ধ্যানে মগ্ন হয়েছেন। এ অবস্থায় মস্তিষ্ক পরিষ্কার হয়ে যাবে এবং অনেক সৃষ্টিশীল বুদ্ধি কাজ করবে। মস্তিষ্ককে পুরোপুরি ক্রিয়াশীল করতে সকালের গোসল খুবই কাজের।

৩. সকালে ওঠাটা কষ্টকর: অনেকেরই রাতে ঘুম হয় না। আবার ঘুম হলেও সকালে ওঠা কষ্টকর হতে পারে। এ অবস্থায় সকালে ওঠার পর গা ম্যাজম্যাজ করে। চলতে ফিরতে মন চায় না। এটা কাটাতে গোসল ওষুধের মতো কাজ করবে। মুহূর্তেই মনটা চনমনে হয়ে উঠবে। অলসতা দূর হবে।

৪. ব্যায়াম করা হয়: এটা দারুণ এক অভ্যাস। সকালে ব্যায়াম স্বাস্থ্যকর অভ্যাস। তবে ব্যায়ামের পর দেহ ঘেমে যায়। এমনিতেও শরীর চর্চার পর একটু ফ্রেশ হওয়া জরুরি।

বিকেলে বা রাতে গোসল করতে পারেন যদি.

১. ত্বক শুষ্ক হয়: অনেকেরই ত্বক স্বাভাবিকের চেয়ে অনেক বেশি শুষ্ক। সকালে তাই গোসল না করে শুষ্ক ত্বকের অধিকারীদের বিকেলে বা রাতে গোসল করা দরকার। কারণ, আগেই বলা হয়েছে সকালে গোসল করলে ত্বকের তেল ধুয়ে যায়। ফলে যাদের ত্বক শুষ্ক, তারা আরো বেশি সমস্যায় পড়বেন। এতে একজিমার মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

২. কাপড় না ধোয়ার অভ্যাস থাকলে: নোংরা কাপড় পরা উচিত নয়। প্রয়োজনে নিজেরই প্রতিদিন কাপড় ধোয়া প্রয়োজন। যাদের কাপড় ধুতে হবে তাদের বিকেলেই গোসল করা দরকার। সকালে ঘুম থেকে উঠে কাপড় ধুয়ে গোসল করার সময় মেলা কঠিন। তাই বিকেলেই সারতে পারেন।

৩. বিকেলে ব্যায়াম করলে: নিশ্চয়ই আপনি বিকেল কিংবা রাতের ঘুম নোংরা শরীরে দিতে চান না। তাই যারা বিকেলে ব্যায়াম করেন তাদের বিকেলেই গোসল করা প্রয়োজন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *