প্রশংসার জোয়ারে ভেসে আসছে জোক

গোথাম শহরের এক ব্যর্থ কমেডিয়ানকে নিয়ে ‘জোকার’-এর গল্প। শিল্পীর সম্মানের বদলে অবহেলা-অশ্রদ্ধায় ঠকতে ঠকতে একসময় উন্মাদ হয়ে যায় সে। একপর্যায়ে নিজেই হয়ে পড়ে নৃশংস অপরাধী। সাড়ে পাঁচ কোটি মার্কিন ডলার ব্যয়ে নির্মিত ডিসি ফিল্মসের এ ছবিটি আন্তর্জাতিকভাবে মুক্তি পেতে যাচ্ছে ৪ অক্টোবর। একই দিনে বাংলাদেশের স্টার সিনেপ্লেক্সেও মুক্তি পাবে ছবিটি। ভেনিস আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবের উদ্বোধনী প্রদর্শনী শেষে বোঝা যায়, চলচ্চিত্রটি সারা বিশ্বের কাছে সমাদৃত না হয়ে পারে না।

ইতিমধ্যে সমালোচকেরা একে দিয়েছেন গোল্ডেন এ প্লাস। কোনো কোনো রিভিউ বলছে, জোকারের অস্কার আটকায় কে! ছবিটি নিয়ে শুরু থেকেই দর্শকদেরও বেশ আগ্রহ রয়েছে। ভেনিসেও তার নজির পাওয়া গেল। সেখানে দু’টি প্রেস স্ক্রিনিং ও রেড কার্পেট প্রিমিয়ার হয়। প্রদর্শনী শেষে যখন ফিনিক্সের নাম দেখানো হয় তখন উচ্ছ্বসিত দর্শকদের হাততালি থামছিল না। টানা প্রায় আট মিনিট দাঁড়িয়ে তাকে সম্মান জানায় দর্শকরা।

‘ব্যাটম্যান’র সেই কুখ্যাত খলনায়ক জোকারের ব্যক্তিগত কাহিনী নিয়ে নির্মিত সিনেমা ‘জোকার’। ভেনিস চলচ্চিত্র উৎসবে সিনেমাটির প্রিমিয়ার প্রদর্শনীর পর দর্শক-সমালোচকরা এর উচ্ছ্বসিত প্রশংসা করছেন। নামচরিত্রের অভিনেতা জোয়াকুইন ফিনিক্স ভেসেছেন প্রশংসার জোয়ারে। জোয়াকুইন ফিনিক্স হলেন ডিসি কমিকস্ সিরিজের সবচেয়ে ভয়ংকর সুপার ভিলেন চরিত্রের রূপদানকারী। ‘দ্য ব্যাটম্যান’ সিনেমার প্রতিশোধ পরায়ন তুখোড় খলনায়ক ছিলেন তিনি। এবার টড ফিলিপস্ পরিচালিত ‘জোকার’ সিনেমার প্রধান চরিত্রে অভিনয় করছেন এই অভিনেতা। ‘জোকার’ ডিসি কমিকস ইউনিভার্সের অংশ হলেও এতে ব্যাটম্যান বা অন্য কোনো সুপারহিরোকে যুক্ত করা হয়নি। গল্প আবর্তিত হয়েছে শুধু জোকারকে কেন্দ্র করে। প্রিমিয়ারে জানানো হয়, এ ছবিতে আগের কোনো সিনেমার প্রভাব নেই। ফিনিক্স বলেন, তারা চাননি কোনো পুনরাবৃত্তি ঘটুক। ছবিতে আরও অভিনয় করেছেন রবার্ট ডি নিরো ও মার্ক ম্যারন। ওয়ার্নার ব্রস এবং ডিসি’র আর-রেটেড কমিক বুক সিনেমা ‘জোকার’। তবে এখানে কোন সুপারহিরোকে দেখানো হয়নি।

প্রিমিয়ার প্রদর্শনীর পর সবার একটাই মন্তব্য, টড ফিলিপস ও জোয়াকুইন ফিনিক্স অবিশ্বাস্য একটি কাজ করেছেন। এক কথায় বলতে গেলে অনেকের কাছেই এটি ‘মাস্টারপিস’, কেউ বলছেন ‘চিরস্মরণীয়’, আবার কেউ বলছেন, ‘যুগান্তকারী’। রোটেন টম্যাটো ইতোমধ্যে ‘জোকার’কে ৮৬ শতাংশ রেটিং দিয়েছে। এ ছাড়া একাধিক সমালোচক ইতোমধ্যে ছবিটির ইতিবাচক রিভিউ দিয়েছেন। ভ্যারাইটির সমালোচক ওয়েন গ্লিয়েবারম্যান বলেন, ‘এটি বিরল কমিক-বুক সিনেমা। এখানে এমন কিছু দেখানো হয়েছে যা বাস্তব জগতে ঘটে।’

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *