মাত্র ১০ টেস্টেই ব্র্যাডম্যানকে ছুঁয়ে ফেললেন রোহিত

টেস্ট ক্রিকেটের ইতিহাসে তার ব্যাটিং গড় ৯৯.৯৪। স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের এই ঐতিহাসিক মহাকীর্তি কেউ মুছে ফেলতে পারবে না। সম্ভবও নয়। ক্রিকেটের ইতিহাসে অনেক রথি-মহারথির আগমণ ঘটেছে, কিন্তু ৯৯.৯৪ গড় কারও পক্ষে করা সম্ভব নয়।

তবে, একটি ক্ষেত্রে অন্তত ১০ টেস্টে ১৫ ইনিংস খেলে স্যার ডন ব্র্যাডম্যানের উচ্চতায় পৌঁছে গেছেন ভারতের রোহিত শর্মা। ঘরের মাঠে খেলে ডন ব্র্যাডম্যানের সমান গড় অর্জন করে ফেলেছেন ভারতীয় এই ওপেনার। ঘরের মাঠে ব্র্যাডম্যানের সঙ্গেই সমান ৯৮.২২ করে ব্যাটিং গড় রোহিত শর্মার।

টেস্ট ক্রিকেটে ঘরের মাঠে ইনিংস ওপেন করতেই এক দুর্দান্ত সেঞ্চুরি করে বসেন রোহিত। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ভিসাখাপত্তনমে সিরিজের প্রথম টেস্টের প্রথম দিনই ভারত কোনো উইকেট না হারিয়ে সংগ্রহ করেছে ২০২ রান। খেলা হয়েছে যদিও মাত্র ৫৯.১ ওভার। বৃষ্টির কারণে দিনের বাকি খেলা অনুষ্ঠিত হতে পারেনি।

এই প্রথম ভারতের হয়ে টেস্ট ওপেন করতে নামেন রোহিত। মায়াঙ্ক আগরওয়ালকে নিয়ে অপরাজিত ২০২ রানের জুটি গড়েন তিনি। প্রথম দিন শেষে রোহিত অপরাজিত রয়েছেন ১১৫ রানে। মায়াঙ্ক আগরওয়াল অপরাজিত রয়েছেন ৮৪ রানে।

সেঞ্চুরি করার পর প্রথম দিন শেষে ঘরের মাঠে রোহিতের টেস্ট পরিসংখ্যান দাঁড়ালো ৯৮.২২ করে। ঘরের মাঠে ১০টি টেস্ট খেলেছেন রোহিত। ব্যাট করেছেন ১৫ ইনিংসে। ৬ বার ছিলেন অপরাজিত। মোট রান করেছেন ৮৮৪। সেঞ্চুরি ৪টি, হাফ সেঞ্চুরি ৫টি। স্যার ডন ব্র্যাডম্যান ঘরের মাঠে টেস্ট খেলেছেন ৩৩টি। ব্যাট করেছেন ৫০ ইনিংসে। ৯৮.২২ গড়ে করেছেন ৪৩২২। সর্বোচ্চ অপরাজিত ২৯৯। ১৮টি সেঞ্চুরি, ১০টি হাফ সেঞ্চুরি।

টেস্ট ঘরের মাঠে প্রথম ইনিংস ওপেন করতে নেমেই সেঞ্চুরি করা ভারতীয় ব্যাটসম্যানদের মধ্যে রোহিত হলেন চতুর্থ। এর আগে প্রথমবার ইনিংস ওপেন করতে নেমে সেঞ্চুরি করেছিলেন শিখর ধাওয়ান, লোকেশ রাহুল এবং পৃত্থি শ। ধাওয়ান এবং পৃত্থি শ আবার সেঞ্চুরিটা করেছেন তাদের অভিষেকেই।

এ নিয়ে টেস্টে টানা ৬টি ফিফটি প্লাস ইনিংস খেলেছেন রোহিত। এই সেঞ্চুরির আগে রোহিতের খেলা ইনিংসগুলো হচ্ছে, ২০১৬ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ৮২ এবং ৫১*, ২০১৭ সালে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টানা ৫ ইনিংসে ১০২*, ৬৫ এবং ৫০*। রাহুল দ্রাবিড় একমাত্র ভারতীয়, যিনি টানা ৬টি ফিফটি প্লাস ইনিংস খেলেছেন ১৯৯৭-৯৮ সালে।

২০১৫ সালে সর্বশেষ ভারত ওপেনিং জুটিতে ২০০ প্লাস রান করেছিল। ফতুল্লায় বাংলাদেশের বিপক্ষে তারা খেলেছিল ২৮৩ রানের ইনিংস। এছাড়া ওপেনিং জুটিতে শুধু দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষেই তিনটি ডাবল সেঞ্চুরি জুটি গড়েছিল ভারতীয় ব্যাটসম্যানরা। ২০০৪ সালে কানপুরে বিরেন্দর শেবাগ এবং গৌতম গম্ভীর গড়েছিলেন ২১৮ রানের জুটি।

২০০৮ সালে চেন্নাইতে বিরেন্দর শেবাগ এবং ওয়াসিম জাফর মিলে গড়েছিলেন ২১৩ রানের জুটি। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ওপেনিং জুটিতে ৫টি সেঞ্চুরি জুটি রয়েছে ভারতের। এর মধ্যে তিনটিই ডাবল সেঞ্চুরির।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *